Home

Home

Follow Google News

Follow Now

Join Whatsapp

Join

Share The Content

Share

Telegram Channel
প্রথম পাতা চাকরির খবর ট্রেন্ডিং নিউজ রেজাল্ট সরকারি প্রকল্প স্কলারশিপ

Death Person Ration: মৃত ব্যক্তির নামে রেশন তুলছেন? সাবধান! সরকার এই আইনি পদক্ষেপ নিতে চলেছে

Advertisements
Advertisements

Death Person Ration: পশ্চিমবঙ্গের সাধারণ মানুষ বেশির ভাগ মানুষ রেশনে বিনামূল্যে খাদ্য সামগ্রী তুলে থাকেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আরও ৫ বছর রেশন দেবেন বলে ঘোষণা করেছিলেন। বর্তমানে দেশের রেশন ব্যাবস্থায় চালু হয়ে গেছে EKYC সিস্টেম। এবং এই উন্নত সিস্টেমের জন্য দেশের রেশন বণ্টনে কিছুটা কারচুপি রুখেছে বলে করছেন দেশের মানুষ। এখন প্রতিমাসের রেশনে বিনামূল্যে খাদ্যসামগ্রী মিলছে। এই খাদ্যসামগ্রী নিতে প্রতি পরিবারের যে কোন একজন ভিড় জমাচ্ছেন রেশন দোকানে।

Advertisements

জানা যাচ্ছে, পরিবারের কোন ব্যাক্তি মারা গেলে তা রেশন ডিলারকে না জানিয়ে চুপিসারে রেশন তুলে নিচ্ছেন পরিবারের সদস্য। এবার তাদের জন্য সাবধান করে দিল সরকার। অজান্তেই প্রতিনিয়ত এই ভুল করে যাচ্ছেন, রেশন থেকে মৃত ব্যক্তির রেশন বাড়ি নিয়ে চলে যাচ্ছেন। এবার বড় আইনি পদক্ষেপ নিতে চলেছে সরকার।

মৃত ব্যাক্তির নাম রেশন (How to Delete Death Person name In Ration Card)

রাজ্যের রেশন ব্যবস্থায় এক আমূল পরিবর্তন আন্তে চলেছে সরকার। শুধু মৃত ব্যক্তির রেশন নিয়ে নয়, মেয়ের বিয়ে হয়ে গেছে বা আলাদা থাকছেন সেক্ষেত্রে রেশন কার্ড বাতিল না করলে চরম শাস্তির মুখে পড়তে হতে পারে আপনাকে। জানিয়ে রাখি, মৃত ব্যক্তির রেশন কার্ড বাতিল করা আইনসম্মত। এই রেশন কার্ড বাতিল না করলে আপনাকে মোটা জরিমানা করা হতে পারে এবং কঠোর আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হতে পারে। তবে অনেকেই আছেন, যারা জানেনই না কিভাবে রেশন কার্ড বাতিল করতে হয়? তবে বিস্তারিত জেনে নিন

মৃত ব্যাক্তির নাম রেশন কার্ড কিভাবে বাতিল করবেন?

মৃত ব্যাক্তির নাম রেশন কার্ড থেকে বাতিল হোক বা বাড়ির মেয়ের বিয়ের পর রেশন কার্ড ট্রান্সফার। এই সব ক্ষেত্র দুই পদ্ধতিতে কাজ সম্পূর্ণ করা সম্বব এক অফলাইন মোড এবং দুই অনলাইন মোড। প্রথমে জানা যাক, অফলাইন মোড-এর পদ্ধতি। সর্বপ্রথম আপনার এলাকার নিকটে অবস্থিত খাদ্য দফতর অফিসে যোগাযোগ করতে হবে। সেখান থেকে মৃত ব্যক্তির নাম বাতিল হোক বা রেশন কার্ড ট্রান্সফারের নির্দিষ্ট ফর্ম তুলতে হবে। তারপর সেই ফর্ম ভালোভাবে পূরণ করতে হবে। ডকুমেন্ট হিসেবে প্রজন হতে পারে ১)আধার কার্ড ২) রেশন কার্ড ৩)বাড়ির ঠিকানার প্রমানপত্র ৪)রেশন ডিলারের সম্মতিপত্র ৫) বিয়ে বা মৃত্যুর সংশ্লিষ্ট পত্রের নথি। আবার কোন ঝামেলা ছাড়াই আপনি আপনার  নিজের রেশন ডিলারের মাধ্যমে এই আবেদনপত্র জমা দিতে পারবেন। রেশন ডিলার সেই আবেদনপত্র খাদ্য দফতরে পাঠিয়ে দেবে। উল্লেখ্য, দুটি আলাদা সার্টিফেট জারি হবে ১)বিয়ের ক্ষেত্রে ট্রান্সফার সার্টিফিকেট ২) মৃত ব্যক্তির ক্ষেত্রে ‘‌সারেন্ডার সার্টিফিকেট’‌।

অনলাইনের মাধ্যমে কিভাবে রেশন কার্ড বাতিল বা ট্রান্সফার করা যাবে?

অনলাইনের মাধ্যমে এই কাজ করা আরও সহজ। প্রথমে আপনাকে খাদ্য দফতরের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট food.wb.gov.in -এ যেতে হবে। আপনি দেখতে পারবেন রেশন কার্ড সংক্রান্ত সকল পরিষেবার অপসন দেখতে পারবেন। তারপর আপনাকে, নির্দিষ্ট অপসন বাতিল বা ট্রান্সফার অপসন-এ বেছে নিতে হবে। সেই অপসন বেছে নিয়ে আপনার কারণ জানাতে হবে, যে আপনি কি কারণে রেশন কার্ড বাতিল বা ট্রান্সফার করতে চাইছেন। তারপর সেই পরিবারের সদস্যের নাম বেছে নিতে হবে যাকে আপনি বাতিল করতে চাইছেন বা ট্রান্সফার করতে চাইছেন সেই সঙ্গে আপনেকে যাবতীয় তথ্য যেমন সেই ব্যক্তির আধার কার্ড, রেশন কার্ড, বিয়ের বা মৃত্যুর শংসাপত্র- এবং ফোটোকপি আপলোড করতে হবে। এই পদ্ধতি মেনে চললেই আপনার কাজ সম্পন্ন হবে।

About Author
Riya Saha
Riya Saha

আমি রিয়া সাহা। গত পাঁচ বছর ধরে বিনোদন, লাইফ স্টাইল ও অ্যাস্ট্রো-সহ নানা বিভাগে কন্টেন্ট রাইটিং কাজের সঙ্গে আমি যুক্ত। লেখালেখির পাশাপাশি পড়াশোনার শখ আমার বরাবরই রয়েছে। প্রবন্ধের পাশাপাশি যে কোনও জেনারেল নিউজ লেখাতেও পারদর্শী। পাঠকদের সামনে তাঁদের জন্য প্রয়োজনীয় ও গরুত্বপূর্ণ তথ্য তুলে ধরাই আমার কাজ।