Home

Home

Follow Google News

Follow Now

Join Whatsapp

Join

Share The Content

Share

Telegram Channel
প্রথম পাতা চাকরির খবর ট্রেন্ডিং নিউজ রেজাল্ট সরকারি প্রকল্প স্কলারশিপ

Kinteic E-Luna: মাত্র ১ টাকায় ছুটবে ১০ কিমি! ভারী মাল টানার ক্ষেত্রে সেরা এই ই-স্কুটার

Advertisements
Advertisements

ভারতে ব্যাপক পরিমাণে চাহিদা বাড়ছে ইলেকট্রিক স্কুটারের। এর পাশাপাশি ইলেকট্রিক গাড়ির ও জনপ্রিয়তা পাচ্ছে দেশে। তবে বৈদ্যুতিক চারচাকা বাজারে এলেও বেশিরভাগ মানুষেরই বেশি পছন্দ বৈদ্যুতিক বাইক বাইক বা বৈদ্যুতিক স্কুটার। এই কারণেই পুরনো দুই চাকার কোম্পানি হোক বা নতুন সবাই ইলেকট্রিক স্কুটার আনছে। আর এর পাশাপাশি কেউ বেশি রেঞ্জ কেউ চার্জিং সময় কম রাখছে।

Advertisements

এইসব প্রতিযোগিতার মাঝেই লঞ্চ হয়ে গেল ধামাকাদার এক নয়া স্কুটার। যার নাম Kinteic E-Luna। প্রতিনিয়ত মানুষ যাতায়াতে এক ভালো টাকা খরচ করে, উল্লেখ্য মানুষের রোজ যাতায়াতে ৫০ থেকে ১০০ টাকা খরচ হয়েই থাকে বললেই চলে। কিন্তু যদি আপনি এই ইলেকট্রিক স্কুটার ব্যবহার করে থাকেন তাহলে আপনার যাতায়াতে প্রতিদিন খরচ পড়বে প্রতি ১০ কিমি ১ টাকায়! চলুন সেই স্কুটার সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

বর্তমান বাজারে Kinteic E-Luna দুর্দান্ত ইলেকট্রিক স্কুটার লঞ্চ করেছে। যখনই ইলেকট্রিক স্কুটারের কথা আসে তখন সবার আগে মনে আসে পরিবেশ দূষণের কথা। এই বৈদ্যুতিক গাড়ি যেমন পরিবেশ রক্ষা করে আবার রেঞ্জও ভালো।

Specification and Range

Kinteic E-Luna যে ইলেকট্রিক স্কুটার এনেছে সেটিতে লাগেজের জন্য বেশি স্পেস দেওয়া হয়েছে। লুকের তুলনা করলে আগের থেকে এই নতুন মডেলটি বেশি আকর্ষণীয়। এর সাথে পেয়ে যাবেন শক্তিশালী ব্যাটারি। একবার সর্ম্পূণ চার্জ হয়ে গেলেই রেঞ্জ পেয়ে যাবেন ১০০ কিমি।

Battery and Speed

এই ইলেকট্রিক স্কুটারে থাকছে দুই কিলোওয়াট লিথিয়াম ব্যাটারির সাপোর্ট। কোম্পানি দাবি রেখেছে এই স্কুটার ৪ ঘন্টার মধ্যে সম্পূর্ণ চার্জ হয়ে যাবে। আর এর টপ স্পিড হবে ৫০ কিমি প্রতি ঘন্টা।

Price: জানা যাচ্ছে, এই ইলেকট্রিক স্কুটারটির দাম রাখা হয়েছে ৫৯০০০ টাকা। তবে মধ্যবিত্তের কথা মাথায় রেখে কোম্পানি EMI-এর সুবিধা করছে।

About Author
Riya Saha
Riya Saha

আমি রিয়া সাহা। গত পাঁচ বছর ধরে বিনোদন, লাইফ স্টাইল ও অ্যাস্ট্রো-সহ নানা বিভাগে কন্টেন্ট রাইটিং কাজের সঙ্গে আমি যুক্ত। লেখালেখির পাশাপাশি পড়াশোনার শখ আমার বরাবরই রয়েছে। প্রবন্ধের পাশাপাশি যে কোনও জেনারেল নিউজ লেখাতেও পারদর্শী। পাঠকদের সামনে তাঁদের জন্য প্রয়োজনীয় ও গরুত্বপূর্ণ তথ্য তুলে ধরাই আমার কাজ।